মেসিকে কেনার পর ৮টি নতুন স্পন্সর পেয়েছে পিএসজি

প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ে যোগ দেওয়ার পর মাঠের পারফরম্যান্সে এখনও নিজের সেরা পর্যায়ে যেতে পারেননি আর্জেন্টাইন সুপারস্টার লিওনেল মেসি। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত খেলা ১৬ ম্যাচে ছয় গোল ও পাঁচ এসিস্ট করেছেন সাতবারের ব্যালনজয়ী ফুটবলার।

তবে দলের মেসির উপস্থিতি কাজে মাঠের বাইরে বাজিমাত করছে ফ্রান্সের ক্লাবটি। মেসিকে দলে নেওয়ার পাঁচ মাসের মধ্যে নতুন আটটি স্পন্সর পেয়েছে পিএসজি। পাশাপাশি আগের স্পন্সররাও চুক্তি নবায়ন করেছে পিএসজির সঙ্গে।

পিএসজির স্পন্সরশিপ ডিরেক্টর মার্ক আর্মস্ট্রং ইইইকে বলেছেন, ‘২০২১ সালে আমাদের আয় বৃদ্ধির হার উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বাড়বে। ২০২০ সাল থেকে অন্তত ১০ শতাংশ বাড়ছে ২০২১ সালের আয়।’

এর পেছনে মেসির বড় অবদানে কথা উল্লেখ করে বাকিদের কথাও মনে করিয়ে দিয়েছেন আর্মস্ট্রং, ‘কোপা আমেরিকায় নিজের সেরা ফর্মে ছিলেন মেসি। চ্যাম্পিয়নস লিগেও এর ছাপ দেখা গেছে। তবে সে একা নয়, জিয়ানলুইজি ডনারুম্মা, আশরাফ হাকিমি ও কাইলিয়ান এমবাপেদের উপস্থিতিও বড় বিষয়।

২০২০ সালে কমার্শিয়াল খাত থেকে প্রায় ২৩৫ মিলিয়ন ইউরোর কাছাকাছি আয় করেছিল পিএসজি। যা তাদের মোট আয়ের ৫৪ শতাংশ। ২০২১ সালে কমার্শিয়াল খাতের এই আয় আরও বৃদ্ধির ব্যাপারে আশাবাদী ক্লাবটি।

গতবছরের আগস্টে মেসিকে দলে নেওয়ার পর ডায়র, ক্রিপ্টোডটকমসহ নতুন ৮টি স্পন্সর পেয়েছে পিএসজি। এছাড়া ২০৩২ সাল পর্যন্ত পিএসজির কিট স্পন্সর নাইকি। যারা প্রতি বছর ৭৫ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে থাকে। এর বাইরে কোকাকোলাও চুক্তির মেয়াদ বাড়িয়েছে ২০২৪ পর্যন্ত।

শুধু তাই নয়, মেসি যোগ দেওয়ার পর পিএসজির সোশ্যাল মিডিয়ার অনুসারীর সংখ্যা বেড়েছে প্রায় দেড় কোটির বেশি। এছাড়া ২০২১ সালে প্রায় দশ লাখের বেশি জার্সি বিক্রি করেছে পিএসজি। যেখানে মেসির একার অবদানই ৩০-৪০ শতাংশ।

সূত্রঃ মার্কা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *