জিতবে না বলে আগেই ঠিক করে রেখেছিল ভারত: গাভাস্কার

জোহানেসবার্গের পর কেপটাউনেও প্রায় একইভাবে টেস্ট ম্যাচ হেরেছে ভারত। সেঞ্চুরিয়নে সিরিজের প্রথম ম্যাচ জিতে সফর শুরু করলেও, পরের দুই ম্যাচ হেরে সিরিজ খুইয়েছে বিরাট কোহলির দল। এ নিয়ে মাত্র চতুর্থবারের মতো প্রথম ম্যাচ জিতেও সিরিজ হারলো ভারত।

শুক্রবার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্টের চতুর্থ দিন মাত্র ৩ উইকেট হারিয়ে ২১২ রান তাড়া করে ম্যাচ জিতেছে স্বাগতিক দক্ষিণ আফ্রিকা। তাদের এই লক্ষ্য ছুঁতে খেলতে হয়েছে ৬৩.৩ ওভার। কিংবদন্তি ব্যাটার সুনিল গাভাস্কার মনে করেন, ম্যাচটি জেতার কোনো ইচ্ছাই ছিল না ভারতের।

তৃতীয় দিন শেষে দক্ষিণ আফ্রিকার সংগ্রহ ছিল ২ উইকেটে ১০১ রান। চতুর্থ দিন আর ১ উইকেট হারিয়ে সহজেই বাকি ১১১ রান করে ফেলে তারা। এদিন লাঞ্চের পর দলের দুই মূল বোলার জাসপ্রিত বুমরাহ ও শার্দুল ঠাকুরকে ব্যবহার করেননি ভারতের অধিনায়ক বিরাট কোহলি।

এটি নিয়েই ক্ষেপেছেন ভারতের সাবেক অধিনায়ক গাভাস্কার। শুধু তাই নয়, রবিচন্দ্রন অশ্বিনের বোলিংয়ে ফিল্ড সেটআপ নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন গাভাস্কার। ম্যাচ শেষে স্টার স্পোর্টসের আলোচনা অনুষ্ঠানে এ বিষয়ে কথা বলেছেন তিনি।

গাভাস্কারের ভাষ্য, ‘লাঞ্চের পর কেনো শার্দুল ঠাকুর ও জাসপ্রিত বুমরাহকে ব্যবহার করা হলো, তা আমার কাছে রহস্যের মতো লেগেছে। বিষয়টা যেনো এমন মনে হচ্ছিল যে ভারত আগেই ঠিক করে রেখেছিল তারা এই ম্যাচটি জিতবে না।’

তিনি আরও যোগ করেন, ‘অশ্বিনের বোলিংয়ে ফিল্ডিং সাজানোও ঠিক ছিল না। খুব সহজেই সিঙ্গেল নেওয়া যাচ্ছিল। বাউন্ডারিতে রাখা হয়েছিল পাঁচ ফিল্ডারকে। যেনো ব্যাটার নিজে ভুল করে। মনে হচ্ছিল এটাই তাদেরকে আউট করার একমাত্র উপায়।’

এসময় প্রোটিয়া ব্যাটারদের প্রশংসা করতেও ভোলেননি গাভাস্কার, ‘পিচটা ব্যাটিংয়ের জন্য খুব একটা সহজ ছিল না। তবে দক্ষিণ আফ্রিকানরা জোহানেসবার্গ ও এখানে (কেপটাউন) যেভাবে খেলেছে, তা অবশ্যই প্রশংসার দাবিদার। দলের ক্যারেক্টার ফুটে উঠেছে এখানে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *